‘জানেন আমি কে? আমি প্যানেল মেয়র রেখা আলম চৌধুরী’ (ভিডিও)


ডেস্ক রিপোর্ট ● ব্যস্ত সড়কে গাড়ি রেখে ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে আলোচনায় এসেছেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সাবেক প্যানেল মেয়র রেখা আলম চৌধুরী।

চট্টগ্রামের একটি ব্যস্ত সড়কে গাড়ি পার্কিং করে রেখেছিলেন রেখা আলম চৌধুরী। এতে যানজট সৃষ্টি হওয়ায় গাড়িটি সরিয়ে নিতে বলায় ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে তর্কে জড়ান তিনি। ঘটনাটি ভিডিও করে ফেসবুকে শেয়ার করেন এক পথচারী। এরপর দ্রুতই তা ভাইরাল হয়ে যায়।

ভিডিওতে দেখা যায়, সড়কের উপর কার পার্কিং করে রাখার কারণ জানতে চান দায়িত্বরত ট্রাফিক সার্জেন্ট। এ সময় তিনি মামলা দেয়ার জন্য এগিয়ে যান। এ সময় দায়িত্বরত ট্রাফিক সাজেন্টকে ধমক দিয়ে ক্ষিপ্ত কণ্ঠে রেখা আলম বলেন, নারীদের সম্মান দিতে জানেন না। সম্মান দিয়ে দেখে-শুনে কথা বলবেন, জানেন আমি কে? আমি প্যানেল মেয়র রেখা আলম চৌধুরী।

ওই সময় পাশ থেকে একজন পথচারী জানান, এটা আ. জ. ম নাসিরের গাড়ি। আর কারের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাফিক সার্জেন্ট জিজ্ঞেস করেন, আপনি কে? পরিচয় দিন। আমি আপনাকে ব্যক্তিগতভাবে চিনি না। ব্যস্ততম সড়কে গাড়ি পার্কিং করলেন কেন?

জনপ্রতিনিধিরা তো জনগণের ভোগান্তি সৃষ্টি করে না। সে সময়েও রেখা আলমকে উচ্চস্বরে বলতে শোনা যায়— গিয়ে বলুন, প্যানেল মেয়র রেখা আলম চৌধুরীর গাড়ি।

ততক্ষণে ট্রাফিক পুলিশের সেই সার্জেন্ট বলেন— আমরা কি করতাম, রাস্তার মাঝে গাড়ি রাখবেন। আবার সরিয়ে নিতে বললে চটে যাবেন। সার্জেন্ট বলেন— না ম্যাডাম! সব দোষ আমার, কারণ আমি ইউনিফর্ম পরেছি!

এ সময় অপর এক পথচারী জানতে চান রাস্তার উপর গাড়ি রেখে যানজট সৃষ্টি করেছেন কেন? তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে রেখা আলমকে বলতে শোনা যায়— আপনি কে! কেন বলবো আপনাকে।

এ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ফারুক আহমেদ বলেন, রেখা আলম নগর আওয়ামী লীগের কোনো পদে নেই। তবে নগর মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক পদে আছেন। তিনি একজন সাবেক জনপ্রতিনিধি হয়ে গাড়ি অবৈধ পার্কিং করার পরেও কর্তব্যরত পুলিশ সার্জেন্টের সাথে অসৌজন্য আচরণ করলেন, তা সমীচীন হয়নি।

ঘটনার বিষয়ে সিএমপির কোতোয়ালী জোনের ট্রাফিক পরিদর্শক জাহাঙ্গীর বলেন, ভদ্র মহিলা গাড়িটি নো পার্কিংয়ের স্থানে রেখে মার্কেটে গিয়েছিলেন। কর্তব্যরত ট্রাফিক সার্জেন্ট গাড়িটি সেখান থেকে সরাতে বললে ওই মহিলা উত্তেজিত হয়ে ট্রাফিক সার্জেন্টের সাথে খারাপ আচরণ করেন। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

তবে এ প্রসঙ্গে রেখা আলম চৌধুরীর বক্তব্য জানা যায়নি।


From comillarbarta.com

Source link

     More News Of This Category